চুলের বৃদ্ধির ৫টি ঘরোয়া প্রতিকার




চুলের বৃদ্ধির ৫টি ঘরোয়া প্রতিকার


চুলের বৃদ্ধির ৫টি ঘরোয়া প্রতিকার

চুল পড়া একটি সাধারণ সমস্যা যা কিনা আমাদের প্রায় সবাই এই সমস্যায় ভোগেন। চুলের বৃদ্ধির জন্য বাজারে নানধরনের প্রসাধনী পাওয়া যায়, যার বেশির ভাগই থাকে ক্ষতিকর ক্যামিকেলে ভরপুর। এতে চুলের বৃদ্ধির বদলে চুলের ক্ষতিই বেশিই হয়। এজন্যই প্রয়োজন কিছু প্রাকৃতিক ঘরোয়া প্রতিকার যা চুলের বৃদ্ধির পাশাপাশি চুলকে সুস্থ্য ও মজবুত করে তুলবে।

আসুন জেনে নেই চুলের বৃদ্ধির জন্য ৫টি ঘরোয়া প্রতিকারের উপায়।

আরও পড়ুন চুলের যত্নে মেহেদি পাতার ব্যবহার

১) চুলের বৃদ্ধিতে নারিকেল ও বাদামের তেল


উপাদানগুলো: নারিকেল তেল, বাদামের তেল

কিভাবে করবেন:

  • একটি বাটিতে পরিমাণমত নারিকেল ও বাদামের তেল নিয়ে হালকা গরম করে নিন।
  • এরপর চুলে গোড়ায় ধীরে ধীরে গরম তেল দিয়ে ম্যাসেজ করে লাগিয়ে নিন।
  • একরাত রেখে পরদিন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

উপকারিতা:

নিয়মিত তেল দিয়ে ম্যাসেজ করলে মাথায় রক্ত সংবহন বাড়ায়, চুলের গোড়া মজবুত করে এবং চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

আরও পড়ুন চুলের যত্নে পেঁয়াজ এবং তার ব্যবহার

২)চুল বৃদ্ধির জন্য অ্যালোভেরা


উপাদানগুলো: অ্যালোভেরার ডাটা

কিভাবে করবেন:

  • ডাটাটি কেটে ভিতরে থাকা জেলটি বের করুন।
  • এই জেলটি আপনার মাথার ত্বকে এবং চুলে ভালভাবে লাগিয়ে নিন।
  • এক ঘন্টা অপেক্ষা করুন। এরপর হালকা শ্যাম্পু দিয়ে আপনার চুল ধুয়ে ফেলুন।

উপকারিতা:

অ্যালোভেরা আপনার মাথার ত্বকের পিএইচ ভারসাম্য বজায় রাখতে, খুশকি নিরাময়ে এবং চুল পড়া রোধ করতে সহায়তা করে।

আরও পড়ুন চুলের যত্নে ঘৃতকুমারীর ব্যবহার 

চুলের বৃদ্ধির ৫টি ঘরোয়া প্রতিকার

৩) চুলের বৃদ্ধির জন্য পেঁয়াজের রস


উপাদানগুলো: ২টি লাল পেঁয়াজ, তুলার বল

কিভাবে করবেন:

  • পেঁয়াজের খোসা ছাড়িয়ে টুকরো টুকরো করে নিন।
  • টুকরাগুলি ব্লেন্ড বা বেটে এর রসগুলি বের করে নিন।
  • আপনার মাথার ত্বকে রসটি সাবধানে তুলা বা হাতের সাহায্যে লাগিয়ে ১৫ মিনিটের জন্য রেখে দিন।
  • অবশেষে একটি হালকা শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

উপকারিতা:

পেঁয়াজ সালফার সমৃদ্ধ এবং কোলাজেন উৎপাদনে সহায়তা করে, চুলের দ্রুত বৃদ্ধির উন্নতি করতে এটি খুবই সহায়ক। 

৪) চুল বৃদ্ধির জন্য আপেল সিডার ভিনেগার


উপাদানগুলো: অ্যাপল সিডার ভিনেগার ৭৫ মিলি, ১ লিটার পানি

কিভাবে করবেন:

  • পানির সাথে আপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে নিন।
  • শ্যাম্পু দিয়ে আপনার চুল ভাল করে ধুয়ে নিন।
  • এরপর এক কাপ আপেল সিডার ভিনেগার মিশানো পানি দিয়ে শেষে ধুয়ে ফেলুন।

উপকারিতা:

আপেল সিডার ভিনেগার কেবল শুধু খুশকি কমাতে সহায়তা করে না বরং এটি চুলের বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে এবং মাথার ত্বকের পিএইচ ভারসাম্য বজায় রাখে।

চুলের বৃদ্ধির ৫টি ঘরোয়া প্রতিকার

৫) চুলের বৃদ্ধির জন্য ডিমের মাস্ক


উপাদানগুলো: ১টি ডিম, ১ টেবিল চামচ অলিভ ওয়েল, ১ টেবিল চামচ মধু

কিভাবে করবেন:

  • একটি বাটিতে সমস্ত উপাদান মিশিয়ে একটি পেস্ট করে আপনার মাথার ত্বকে সাবধানে প্রয়োগ করুন।
  • আধা ঘণ্টাপর শ্যাম্পু দিয়ে ভালভাবে ধুয়ে নিন।
  • সপ্তাহে একবার এই প্রক্রিয়া পুনরাবৃত্তি করুন।

উপকারিতা:

ডিমে সেলেনিয়াম, সালফার, দস্তা, আয়রন, আয়োডিন এবং ফসফরাস সমৃদ্ধ উপাদান রয়েছে যা চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

উপরের ঘরোয়া প্রতিকারগুলো ছাড়াও আমাদের প্রতিদিনের খাদ্যাভাসে পরিবর্তন আনতে হবে। নিয়মিত বেশি করে পানি ও ভিটামিন ‘ই’ ও ’সি’ যুক্ত খাবার গ্রহন করা উচিত।

লেখক/অবদানকারী: অবদানকারী পৃষ্ঠাটি পড়ুন


বিজ্ঞাপন




আমাদের ফেসবুক পেজ @NURStudioBD

ইংরেজি ভাষায় আমাদের লাইফস্টাইল ব্লগটি ঘুরে আসুন - AUHStyle - It's A Coeval Lifestyle


আরও একটি সম্পর্কিত পোস্ট পড়ুন চুল পড়ার ঘরোয়া প্রতিকার

আরও একটি সম্পর্কিত পোস্ট পড়ুন চুল পড়া বন্ধে ঘরোয়া উপায় 

মন্তব্য