পোস্ট

বৈশিষ্ট্যযুক্ত পোস্ট

আমার মা

সারা রাত আমার হাত বুকে নিয়ে শুয়ে থাকতেন, ঘুম থেকে চোখ খুলেই দেখতাম মাইয়া (মা) আমার দিকে তাকিয়ে আছেন। আমার চোখ তার চোখে পড়ার সাথে সাথে ভুবন জুড়ানো একটি হাসি দিতেন। তিনি আগে থেকেই রাতে তেমন ঘুমাতেন না, জেগে জেগে নামাজ পড়তেন, যিকির করতেন। ব্রেন স্ট্রোক করার পর মাইয়ার শরীরের বাম পাশ অবশ হয়ে যায়, তখন থেকে সবসময় শুয়েই থাকতেন, তাই রাতে আর তার ঘুম আসত না। অসুস্থ ছিলেন, তবু ছিলেন… বিছানার যে জায়গাটাই আমার মা থাকতেন, আজ একবছর পরও তাকালে মনে হয় তিনি ওখানেই আছেন। ভাবতাম মাকে ছাড়া কিভাবে থাকব, এরপরও সময় চলে যাচ্ছে… আমার মা গত বছর এই দিনেও আমার কাছে ছিলেন, আমাদের পাশে ছিলেন, আজ নেই… জীবনের প্রয়োজনে কিছু সময় ছাড়া ছোটবেলার মতো মায়ের কাছাকাছি আর থাকার সৌভাগ্য হয়নি। যখন তাকে আবার কাছে পেয়েছিলাম, সেবা করার সুযোগ পেয়েছিলাম, দূর্ভাগ্য যে তিনি তখন তেমন কিছুই বুঝতেন না। যখন সুস্থ ছিলেন তখন অনেক কাছে রাখতে চেয়েছি, গ্রামের বাড়ি-ঘর ছেড়ে আসতে চায়নি। যখন অসুস্থ হয়ে পড়লেন, তখন আর মানা করতে পারেননি। আমার মা গ্রামের সাধারণ একজন নারী হয়েও অসাধারণ ছিলেন - কোনদিন আরম্ভর, অহংকার করতে দেখিনি, কোন কিছু নিয়ে অভিযোগ করত

করোনা ভাইরাসের এই সময়ে আমাদের করণীয়

ঈদুল-আযহা ও কুরবানি নিয়ে কিছু কথা

গরুর ও খাসির ভুঁড়ি কিভাবে পরিষ্কার করবেন?

সহজে শিং মাছ পরিষ্কার করার পদ্ধতি

বিশ্ব বাবা দিবসে বাবা-মাকে নিয়ে কিছু কথা

আনারসের জুস তৈরির রেসিপি

সুস্বাদু চিংড়ি কোরমা

পবিত্র শবেকদর; হাজার রাত-দিনের চেয়ে উত্তম ও পুণ্যময় একটি রাত-দিন

রমজানে কি কি খাওয়া উচিত ও উচিত নয়

চুলের বৃদ্ধির ৫টি ঘরোয়া প্রতিকার

করোনা আতঙ্ক! কিভাবে খাবারের মাধ্যমে আমরা করোনা ভাইরাস থেকে নিরাপদ থাকতে পারি?

করোনাভাইরাস থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখার উপায়