পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত পাঁচটি ফুল



ফুল আমরা সবাই ভালবাসি, কারণ সুন্দর সবাইকেই নিজের দিকে আকর্ষণ করে। কিন্তু কোন কোন সৌন্দর্যের দিকে আকর্ষণ ক্ষতির কারণও হতে পারে, যেমন বিষাক্ত কিছু ফুল।

এই ব্লগ পোস্টটিতে আপনি জানতে পারবেন পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত পাঁচটি ফুল সম্পর্কে:

) হেমলক (Hemlock)

হেমলক (ছবি: সংগৃহীত)
হেমলক সেই বিষাক্ত ফুল যা দিয়ে  থেরামিনস (Theramenes), সক্রেটিস (Socrates)  ফোকিয়ন (Phocion)-কে হত্যা হয়েছিল। সক্রেটিস বিষাক্ত হেমলকের সবচেয়ে পরিচিত শিকার, যে কিনা অভিযুক্ত হয়েছিল অ্যাথেন্সর যুবকদের পথচ্যুত করার অভিযোগে এবং বিচারে তাকে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়। সময়টা খ্রিষ্টপূর্ব ৩৯ সাল সক্রেটিস নির্ভয়ে বিষাক্ত হেমলকের বিষ পান করেন এবং মৃত্যুর কোলে ঢলে পাড়েন।

হেমলক একটি বিষাক্ত ফুল গাছ। হেমলক ‍উদ্ভিদ যেকোন পরিবেশে বেড়ে উঠতে পারে। বিষাক্ত হেমলকের ফুল ছোট  সাদাসাধারনত বসন্তে ফোটে।আধুনিক গবেষনায় হেমলক প্রানীদের জন্য বিষাক্ত প্রমানিত হয়েছে। এর যে কোন অংশ গ্রহনে মানুষ বা প্রাণীর মৃত্যুও হতে পারে, তবে শিকড় বেশি বিষাক্ত। লক্ষনসমূহের মধ্যে রয়েছে মাথা ঘোরা, পেটব্যাথা, বমি আরো বিভিন্নরকম প্রদাহ।

) রডোডেনড্রন (Rhododendron)

রডোডেনড্রন (ছবি: সংগৃহীত)
লাল রঙের  অসম্ভব সুন্দর দেখতে ফুলটির বাসস্থান এশিয়া, যদিও লাল ছাড়াও রডোডেনড্রন অন্য রঙের হয়। বসন্তের শেষের দিকে ফোটে। এই ফুল গাছটির  সব অংশই বিষাক্ত। একটি প্রাচীন বিবরণ অনুসারে, এই ফুল থেকে আহোরিত মধু দিয়ে আক্রমনকারী সেনাবাহিনীর জন্য মৃত্যু ফাঁদ পাতা হয়েছিল তুর্কির পন্টাস অঞ্চলে। এই ফুলটি এখন hallucinogenic বা মায়া মধু তৈরিতে তুর্কিতে ব্যবহার করা হয়।

) ধুতুরা (Datura)

ধুতুরা (ছবি: সংগৃহীত)
ধুতুরা একটি পরিচিত ফুলের নাম। এই ফুল খেয়ে মৃত্যুর ঘটনা অনেক শোনা যায়। এটি শয়তানের শিঙ্গা বা devil's trumpets বলেও পরিচিত। সব প্রজাতির ধুতুরাই বিষাক্ত, বিশেষ করে ধুতুরার ফুল ও বীজ। তবে  ধুতুরা কতটা বিষাক্ত হবে তা নির্ভর করে গাছটির বয়স, বেড়ে উঠার পরিবেশ ও স্থানীয় আবহাওয়া উপর। এই গাছটির ফুল, বীজ এবং শিকড় এমন কিছু উপাদান বহন করে যার কারনে ধুতুরা শতাব্দী ধরে অনেক সমাজে বিষ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। 

আত্মহত্যা ও হত্যার জন্য ধুতুরা একটি জনপ্রিয় বিষ। ধুতুরা খাওয়ার পরিনতি স্বরূপ অস্থিরতা, অমূলপ্রত্যক্ষ (hallucination), চেতনানাশ ইত্যাদি ছাড়া মৃত্যুও হতে পারে। দ্যা স্টেট ক্যামিকেল ল্যাবরেটরীজ, আগ্রা, ইন্ডিয়া-র তথ্যনুসারে, ১৯৫০ থেকে ১৯৬৫ সাল পর্যন্ত ইউরোপ ও ইন্ডিয়ায় প্রায় ২৭৭৮ জন  মানুষ মারা গিয়েছে। ধুতুরা বাচ্চাদের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

আরো পড়ুন: 

উপত্যাকার লিলি (Lily of the Valley)

উপত্যাকার লিলি (ছবি: সংগৃহীত)
উপত্যাকার লিলি বা Lily of the Valley একটি মিষ্টি যুগন্ধযুক্ত, দুল আকৃতির সাদা ফুল। এই উদ্ভিদের সব অংশই বিষাক্ত; ভুল করে সামান্য পরিমাণ লিলি অভ দ্যা ভ্যালী খেয়ে ফেললে পেট ব্যাথা, বমি, হৃদস্পন্দন কমে যাওয়া, চোখে ঘোলা দেখা এবং শরীরের লাল-লাল দানা দেখা যেতে পারে, অতিদ্রুত ব্যবস্থা না নিলে মৃত্যুও হতে পারে।

ফ্রি ইন্টারন্যাশনাল মাস্টারকার্ড পেতে এখানে ক্লিক করুন

) অলেন্ডার (Oleander)

অলেন্ডার (ছবি: সংগৃহীত)
অলেন্ডার খুবই পরিচিত একটি ফুল, হয়ত নামটি অনেকের অজানা থাকতে পারে। এটি দক্ষিন এশিয়ার একটি চিরসবুজ ঝোপঝাড়। উদ্ভিদটি  থোকায় থোকায় সাদা, গোলাপী, বা লাল রঙের মিষ্টি যুগন্দযুক্ত ফুল ফোঁটায়। এটি একটি ভয়াবহ বিষাক্ত ফুল গাছ। যেই ফুলদানীতে আপনি এই ফুলটি সাজিয়ে রাখবেন, সেই ফুলদানীর পানিও আপনার সর্বনাশ করতে পারে।

এই বিষ খুব দ্রুত শরীরে ছড়িয়ে পড়ে, কারণ এর প্রভাব পড়ে সরাসির রক্তে। এই ফুল সেবনের ফলে হৃদয় ও কেন্দ্রীয় স্নায়ুতণ্ত্র প্রভাবিত হয়ে থাকে। এছাড়াও অনিয়মিত হৃদস্পন্দন্ত্র, বমিভাব, লালা, ডায়ারিয়া হয়ে থাকে।পাতা চিবানো বা ফুল থেকে মধু চুষে খাওয়া যে কোনটিই হতে পারে আপনার মৃত্যুর কারন।




আমাদের ফেসবুক পেজ @NURStudioBD

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল @Cooking, Health, & Beauty

মন্তব্যসমূহ