রুপচর্চায় ঘৃতকুমারীর ব্যবহার ও উপকারিতা




রুপচর্চায় ঘৃতকুমারীর ব্যবহার ও উপকারিতা 


ঘৃতকুমারী গাছ সম্পর্কে আমরা অনেকেই কমবেশি জানি যে বিভিন্ন ঔষধি গাছের মধ্যে ঘৃতকুমারী একটি বহুজীবি ভেষজ ঔষধি গাছ যা পুষ্টিগুনে ভরপুর। অনেক বছর আগে থেকে ঘৃতকুমারী ঔষধি হিসেবে, চুলের যত্নে ও ত্বকের যত্নে ব্যাবহার করে আসছে। বিভিন্ন কসমেটিকস্ কোম্পানী ঘৃতকুমারী দিয়ে কসমেটিকস্ তৈরি করে থাকে বলে জানা যায়। এছাড়াও ঘৃতকুমারীর ডাটা রস করে খাওয়া যায়।

আরও পড়ুন ত্বকের যত্নে মসুর ডাল

উপকারিতা:


ঘৃতকুমারী গাছ মানব দেহের বিভিন্ন উপকারে আসে, শরীর স্বাস্থ ঠিক রাখে, চুলের যত্ন করা যায় ও রুপচর্চা করা যায়। আমাদের শরীর স্বাস্থ্য ঠিক রাখার জন্য যেসব উপাদান প্রয়োজন ঘৃতকুমারীর মধ্যে তার অনেকগুলো উপাদান রয়েছে। যেমন এতে রয়েছে ২০ রকমের খনিজ ও আরও রয়েছে ২২টা অ্যামিনো অ্যাসিড যা দেহের প্রয়োজন এবং এছাড়াও রয়েছে ভিটামিন এ, বি১, বি২, বি৬, বি১২, সি এবং ই।

আরও পড়ুন টমেটো দিয়ে রূপচর্চা

রুপচর্চার নিয়মাবলি:


প্রতিদিন ঘৃতকুমারীর রস পান করলে শরীর ও স্বাস্থ্য অটুট থাকে যা ত্বকের জন্যে অনেক উপকারী। ঘৃতকুমারী রস দিয়ে যেকোন প্রকার ত্বকের রুপচর্চা করতে পারে কারণ সব ধরনের ত্বকের জন্য উপকারী, কোন ক্ষতি হয় না।

- ঘৃতকুমারীর ডাটা পিষে রস বা জেল বের করে নিয়মিত ত্বকে ১০/১৫ মিনিট লাগিয়ে রেখে ঠান্ঠা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে কয়েকদিনের মধ্যে দেখতে পাবেন যে ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি পেয়েছে, ত্বক সতেজ করেছে, মসৃণ করেছে, ব্রনের দাগ দুর করেছে ও ব্রন উঠার প্রবনতা কমিয়েছে করে এবং রোদেপোড়া দাগ মোচন করতে সাহায্য করছে। 


- ঘৃতকুমারীর জেলের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে হাতে, পায়ে, মুখে ও গলায় লাগিয়ে ১০/১৫ মিনিট রেখে ঠান্ঠা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে ত্বকের কালো দাগ কমে যাবে।

- ২/৩ চামচ ঘৃতকুমারীর জেলের সাথে ১/২ চামচ টমোটো পেষ্ট করে মিশিয়ে মুখে গলায় লাগিয়ে ১০/১৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে এতে ত্বকের ময়লা দূর করে আরও সুন্দর করে তুলবে।

- মুখের ভাজ, বলিরেখা দূর করতে ও ত্বক মসৃণ ও নরম করতে ২/৩ চামচ জেলের সাথে ১টি ডিমের সাদা অংশ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে মুখে লাগিয়ে ২০/২৫ মিনিট রেখে অথবা হালকা শুকিয়ে আসলে নরম কাপড় ভিজিয়ে আস্তে আস্তে তুলে ফেলতে হবে।



- শুষ্ক ত্বকের জন্য ঘৃতকুমারীর ১/২ চামচ জেলের সাথে শশার রস ১ চামচ, টকদই ১/২ চামচ, লেবুর রস হাফ চামচ করে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে হাতে-পায়ে ও মুখে-গলায় লাগিয়ে ১০/১৫ রেখে ধুয়ে ফেলুন।

- সব ধরনের ত্ত্বকের জন্য ২/৩ চামচ ঘুতকুমারীর জেলের সাথে দুধের সর অথবা মাখন ১ চামচ মিশিয়ে মুখে ১৫/২০ মিনিট রেখে দিয়ে ঠান্ঠা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে ত্বক পরিস্কার করবে।

- ঘৃতকুমারীর ২/৩ চামচ জেলের সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে হাতে-পায়ে, মুখে লাগিয়ে ১৫/২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন, ত্বকের লোমকোপের ময়লা দূর করবে। 



এই হলো ত্বকের যত্নে ঘৃতকুমারীর ব্যবহার ও উপকারিতা। এছাড়া দেহের ও চুলের যত্নে ঘৃতকুমারীর ব্যবহার ও উপকারিতা সম্পর্কে জানতে নিয়মিত চোখ রাখুন আমাদের ব্লগে। 

লেখক/অবদানকারী: অবদানকারী পৃষ্ঠাটি পড়ুন 

বিজ্ঞাপন


আমাদের ফেসবুক পেজ @NURStudioBD 

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল @Cooking,Health,&Beauty  


আরও একটি সম্পর্কিত পোস্ট পড়ুন সৌন্দর্য চর্চায় ঘৃতকুমারী 

আরও একটি সম্পর্কিত পোস্ট পড়ুন রূপচর্চায় ঘৃতকুমারী 

মন্তব্য