লাউয়ের পুষ্টিউপাদান ও উপকারিতা

লাউয়ের পুষ্টিগুণ এবং উপকারিতা  

লাউয়ের পুষ্টিউপাদান ও উপকারিতা
লাউয়ের পুষ্টিউপাদান ও উপকারিতা  

আমরা সবাই প্রায় শাক-সবজির খেতে ভালবাসি। সবুজ শাক সবজি বলতেই পুষ্টিগুণে ভরপুর সেটা আমরা সবাই জানি। আমরা ছোট বেলা থেকে পরিবারের কাছ থেকে জেনে এসেছি ও বিভিন্ন বই পড়ে জেনেছি কোন কোন শাকসবজিতে কি কি পুষ্টি গুনাগুন আছে এবং শরীর স্বাস্থের কি কি ধরনের উপকারে আসে।
লাউ বা কদু শীতকালীন সবজিগুলোর মধ্যে অন্যতম। লাউ এক প্রকার লতানো উদ্ভিদ যা এর ফলের জন্যে চাষ করা হয়, যা কিনা কাচা অবস্থায় সবজি হিসেবে খাওয়া হয়। লাউ শীতকালে বেশী বাজারে পাওয়া যায়  তবে লাউ ১২ মাসই বাজারে পাওয়া যায়। কচি লাউয়ের রং হালকা সবুজ, ভেতরে সাদা রঙের শাঁস। লাউকে আঞ্চলিক ভাষায় কদু বলা। কচি লাউয়ের রং হালকা সবুজ, ভেতরে সাদা রঙের শাঁস। এটি সবজি হিসেবে খাওয়া হয়। শুধু লাউ নয়, লাউয়ের খোসা, লতা, এমনকি পাতাও খাওয়া যায়।

উপাদান:

প্রতিটি লাউয়ে প্রচুর পরিমানে পানি থাকার পাশাপাশি আরও আছে- কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, ফ্যাট, ভিটামিন-সি, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, পটাশিয়াম, নিকোটিনিক অ্যাসিড। এছাড়াও লাউয়ে রয়েছে খনিজ লবন, ভিটামিন বি-১, বি-২ এবং আয়রন।


বিজ্ঞাপণ
পুষ্টিগুণ:

১. লাউয়ে প্রচুর পানি থাকে, যা দেহের পানির পরিমাণ ঠিক রাখতে সাহায্য করে। ডায়রিয়া জনিত পানিশূন্যতা দূর করতে সাহায্য করে।
২. লাউ খেলে ত্বকের আর্দ্রতা ঠিক থাকে।
৩. প্রস্রাবের সংক্রমণজনিত সমস্যা দূর হয়। কিডনির কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
৪. উচ্চ রক্তচাপবিশিষ্ট রোগীদের জন্য এটি আদর্শ সবজি।
৫. এই সবজি দেহের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। ইনসমনিয়া বা নিদ্রাহীনতা দূর করে পরিপূর্ণ ঘুমের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
৬. লাউয়ে রয়েছে ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস, যা দেহের ঘামজনিত লবণের ঘাটতি দূর করে। দাঁত ও হাড়কে মজবুত করে।


লাউ
লাউ
আরও পড়ুন  ডিম আলুর ঝোল কারি

৭. ক্যালরির পরিমাণ কম থাকায় ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যও লাউ যথেষ্ট উপকারী। ডায়েটিং কালেও লাউ ভালো ফল দেয়।
৮. চুলের গোড়া শক্ত করে এবং চুল পেকে যাওয়ার হার কমায়।
৯. কোষ্ঠকাঠিন্য, অর্শ, পেট ফাঁপা প্রতিরোধে লাউয়ের রয়েছে সহায়ক গুণাবলি।
১০. লাউ শাকে প্রচুর আয়রন রয়েছে। রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ এবং লোহিত রক্ত কণিকার সংখ্যা বাড়িয়ে রক্ত তৈরিতে সাহায্য করে।
১১. লাউয়ে প্রাকৃতিক ভিটামিন পাওয়া যায়, তাই প্রতিদিন লাউ খেতে পারলে, বিশেষ করে জুস খেতে পারলে ত্বক ভিতর থেকে ভাল থাকে ও ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে, তৈলাক্ততা দূর করে এবং মুখের ব্রন হওয়া কমে যায় ও  ব্রন ভাল হয়।
১২. লাউ খেলে কোষ্ঠকাটিণ্য দূর করে থাকে এ কারনে ব্রন কমাতে সাহায্য করে।
১৩. লাউয়ের পেষ্ট তৈরি করে মুখে, হাতে পায়ে লাগালে সতেজ ও মসৃন হয়।

আরও জানুন  সাদা ভাতের উপকারিতা ও গুনাগুন

লাউ
লাউ
লাউ দিয়ে হালুয়া, পায়েস, নিরামিষ, ভাজি, ভর্তা, ঝোল, যে কোন মাছ ও মাংসের সাথে দিয়ে রান্না করতে পারেন এবং জুস বা সুপ করে অথবা সালাদের সঙ্গে মিশিয়ে খেতে পারেন। তবে লাউ যেভাবেই খান না কেন লাউ ত্বক ভিতর থেকে ভাল রাখে এবং শরীর স্বাস্থের জন্যও অনেক উপকারী। লাউ ক্ষেতে যেমন সুস্বাধু তেমনি লাউয়ের গুনাগুনেরও শেষ নাই। লাউ পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ স্বাস্থ্যকর সবজিগুলোর একটি। এজন্য সুস্থ ও সবল থাকতে হলে আমাদের নিয়মিত প্রতিদিন সবজি খাওয়া উচিত।

----------------------

আমাদের ফেসবুক পেজ - @NURStudioBD
আমাদের ইউটিউব চ্যানেল -  Cooking, Health, & Beauty
আমাদের NurStudioBD Google+ & Community 

মন্তব্যসমূহ