সাদা ভাতের উপকারিতা ও গুনাগুন

ভাতের পুষ্টিগুন ও উপকারিতা

ভাতের উপকারিতা ও গুনাগুন
ভাতের উপকারিতা ও গুনাগুন
আমরা বাংলাদেশী, ভাত আমাদের প্রধান খাদ্য। চাল সিদ্ধ করে ভাত রান্না করা হয়। আমরা সবাই মাছে-ভাতে বাঙ্গালী। বেশিরভাগ লোকজন তিন বেলাই ভাত খেয়ে থাকেন, বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে। অন্য যা কিছুই খাওয়া হউক না কেন, ভাত না খেলে ক্ষুধা মিটে না ও তৃপ্তিও হয় না, মোটকথা ভাতেই খেতে হবে। অন্যান্য দেশেও যেমন ভারত, চীন ও জাপানেও ভাত খেয়ে থাকে। অনেকেই বলে চাউল অথবা ভাত রান্না অনেক সহজ যে কেউ রান্না করতে পারে এটা কোন ব্যাপারই না। ভাত হয়ত বেশির ভাগ লোকজনই রান্না করতে পারে, কিন্তু শুধু রান্না করলেই হয় না, ভাত রান্নারও কিছু নিয়ম আছে তা ঠিকমতে বুঝতে হয়, আবার সব ধরনের ভাত সবাই খেতে পারে না, একেকজন একক রকম ভাত পছন্দ করে থাকে, যেমন- নরম ভাত, শক্ত ভাত, হাফ নরম ও বিশেষ করে ঝড়ঝড়ে ভাত।

জেনে নিন চিংড়ি ভুনা

ঝরঝরে ভাত
ঝরঝরে ভাত
মোটা হয়ে যাবে এজন্য অনেকেই ভাত খাওয়া বন্ধ করে দেয়, যার ফলে কিছুদিন পর শরীরে দেখা যায়  নানা ধরনের সমস্যা। পরিমাণমত ভাত খেলে মানুষ মোটা হওয়া বা ওজন বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ অতিরিক্ত অথবা বেশি ভাত খেলে শরীরে অলসতা বেড়ে যায়, শরীরে চর্বি  হয় ও পেটে মেদ বাড়ে। শুধু ভাত না অন্যকিছু যেমন তেলেভাজা জিনিষ খেলেও ওজন বেড়ে যায়। মোটা হওয়ার কারণে বিভিন্ন ধরনের রোগাক্রমনের সম্ভাবনা থাকে। এজন্য ভাতের সাথে সব সময় বেশি করে শাক-সবজি, ডাল, সালাদ খাবেন এছাড়াও মাছ, মাংস, ডিম অন্যান্য ভিটামিন যুক্ত খাবার খাবেন।


শরীরকে সুস্থ রাখার জন্য ভাত একটি পুষ্টিকর খাবার, ভাত আমাদের শরীরের শক্তি যোগায়। ভাতে ক্যালোরি, প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, ফ্যাট, ফাইবার ছাড়াও আরও অনেক উপাদান আছে। ভাতের সাথে ডাল, শাক-সবজি, সালাদ, মাছ, ডিম, মাংস এসব খাবার মিলিয়ে খাওয়ার কারণে শরীরে যেমন শক্তি যোগায় ও পুষ্টিগুণ পেয়ে থাকে। এজন্য ভাত অনেক উপকারী খাবার ও শরীরের ভারসাম্য রক্ষা করে।
বসা ভাত
বসা ভাত
ঢেঁকি ছাটা চাউলের ভাত অথবা লাল চাউলের ভাত খাওয়ার চেষ্টা করবেন। ভাতের মাড় ফেলা উচিৎ না। মাড় ফেললে পুষ্টিগুণ কমে যায়। পুষ্টির কথা ভেবে যদি পুষ্টিগুণই ফেলে দেই তাহলে লাভটা কি হল। যতদূর সম্ভব মাড় না ফেলে রান্না করবেন। রাইস কুকারে ভাত রান্না করুন এতে পুষ্টিগুন ঠিক থাকবে ঝামেলা কম শুধু বিদ্যুৎ থাকলেই হবে। রাইস কুকারে ভাত, খিচুরি ও আরও অনেক কিছু  সহজে রান্না করা যায়। এছাড়াও পান্তা ভাতেও পুষ্টিগুন অনেক থাকে, পান্তা ভাত খেলে শরীরের দ্রুত শক্তি আসে, শরীর ঠান্ঠা রাখে ও পানির অভাব দূর করে। অতএব সুস্থ থাকার জন্য ভাত প্রতিদিনের খাবারের একটি জরুরি উপাদান।



------------------------


আমাদের ফেসবুক পেজ - @NURStudioBD
আমাদের ইউটিউব চ্যানেল -  Cooking, Health, & Beauty
আমাদের NurStudioBD Google+ & Community 

মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন